অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম

অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কি, বিদেশ যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে করবেন, কিভাবে বাংলাদেশ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন, অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটের আবেদন করার নিয়ম বিস্তারিত

নতুনভাবে বিদেশ যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করতে হয়। আজ আলোচনা করব, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে করবেন, কিভাবে বাংলাদেশ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন, অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটের আবেদন করার নিয়ম ও বিস্তারিত তথ্য।

শুধুমাত্র বিদেশ যাওয়ার জন্য অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের আবেদন করা যায়। তবে দেশের মধ্যে কোন প্রয়োজনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পেতে জেলা এসবি অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কি

আপনি যে দেশের একজন সু নাগরিক কিংবা আপনি কোন প্রকার অপরাধের সাথে জড়িত নেই তার পক্ষে পুলিশের প্রত্যয়নকেই বলা হয় পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট।

সাধারণত কোন অপরাধীর পক্ষে এ সার্টিফিকেট গ্রহণ করা সম্ভব নয়। পুলিশ সাধারণত কোন অপরাধীকে এই সার্টিফিকেট প্রদান করবে না। দেশের সুনাগরিকরাই পুলিশের এই সেবা পেতে পারেন। আপনি দেশের একজন সুনাগরিক তার প্রমাণ হিসাবে একমাত্র সনদ হচ্ছে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট কিভাবে পাবো

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাওয়ার জন্য অবশ্যই আপনার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র থাকতে হবে। অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করে ও চালান পরিশোধ করে সঠিকভাবে আবেদন করবেন। এরপর, আপনার বর্তমান বা স্থায়ী ঠিকানায় অবস্থিত থানায় আপনার আবেদনটি ফরওয়ার্ড করা হবে। পুলিশ থানা থেকে আপনাকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে যোগাযোগ করতে বলা হলে, যোগাযোগ করবেন। থানা থেকে সন্তোষজনক রিপোর্ট প্রদান করা হলে আপনার পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট করতে কি কি লাগে

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট করার জন্য যেসব কাগজপত্র ও শর্ত প্রযোজ্য তা হল-

  • অনলাইনে আবেদন
  • কমপক্ষে ৩ মাস মেয়াদ আছে এমন পাসপোর্ট।
  • পাসপোর্ট অনুসারে আবেদনকারীর বর্তমান বা স্থায়ী ঠিকানার কোন একটি মেট্রোপলিটন বা জেলা পুলিশের আওতাধীন হতে হবে।
  • বিদেশে অবস্থানকারী বাংলাদেশী নাগরিকগনের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট দেশে বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক সত্যায়িত পাসপোর্টের তথ্য পাতার স্ক্যানড কপি।
  • বিদেশী নাগরিকদের ক্ষেত্রে নিজ দেশের জাস্টিস অব পিস (Justice of Peace) কর্তৃক সত্যায়িত পাসপোর্টের তথ্য পাতার স্ক্যানড কপি।
  • বাংলাদেশ ব্যাংক/ সোনালী ব্যাংকের যে কোন শাখা থেকে (পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চালান কোড: ১-৭৩০১-০০০১-২৬৮১) কোডে করা ৫০০/- (পাঁচশত) টাকার অনলাইন বা অফলাইন চালান। ক্রেডিট/ডেবিট কার্ড ও বিকাশের মাধ্যমে অনলাইনে চালান পরিশোধ করতে পারবেন।

অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার নিয়ম

বিদেশ যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের জন্য আপনাকে অবশ্যই অনলাইনেই আবেদন করতে হবে। তবে দেশের অভ্যন্তরে কোন চাকরী বা প্রয়োজনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ প্রয়োজন হলে সংশ্লিষ্ট জেলা কিংবা সিটি এসবি শাখায় যোগাযোগ করুন।

Time needed: 20 minutes.

অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

আপনার মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে Mozila Firefox অথবা Google Chrome ব্রাউজার ওপেন করুন। তারপর বাংলাদেশ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ওয়েবসাইট pcc.police.gov.bd ভিজিট করুন। ওয়েবসাইটের বাম পাশ থেকে Registration বাটনে ক্লিক করুন। নিচের মত একটি ফর্ম পাবেন। Name ফিল্ডে পাসপোর্ট অনুসারে আপনার ইংরেজিতে নাম লিখুন- Block Letter/Capital Letter এ লিখতে পারেন। আপনার মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিন। Email বক্সে আপনার সচল ইমেইল এ্যাড্রেস থাকলে লিখুন। তবে না দিলেও চলবে। এটি অপশনাল। বিদেশী নাগরিক বা শিশু হলে, ডান পাশের Foreign/Child অপশনে টিক দিন। এরপর ক্যাপচা পূরণ করে Continue করুন।

 মোবাইল নম্বর ভেরিফিকেশন

এ ধাপে মোবাইল নম্বর ভেরিফিকেশনের জন্য একটি কোড দেওয়া হবে। এখানে কোডটি হচ্ছে- PCC AV 6154, এখন আপনি যে মোবাইল নম্বরটি দিয়েছেন, সেই মোবাইল নম্বর থেকে একটি SMS সেন্ড করে একাউন্ট ভেরিফিকেশন করুন। আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে যান> টাইপ করুন PCC<space>AV<space>6154 এরপর সেন্ড করুন 26969 নম্বরে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের উদ্দেশ্য বাছাই

আপনার একাউন্ড সফলভাবে ভেরিফিকেশন হলে, Your account is successfully verified এসএমএস পাবেন। পুনরায় হোম পেইজে ফিরে যান। আপনার মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিয়ে Sign In করুন। উপরের মেন্যুবার থেকে Apply ক্লিক করুন। এখানে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কেন প্রয়োজন তা বাছাই করতে হবে। বিদেশ যাওয়ার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন অনলাইনে করতে হয়। অন্যান্য প্রয়োজনে লিখিত আবেদন করতে হয়। বিদেশ যাওয়ার জন্য হলে, Go abroad টিক দিয়ে দেশের নাম সিলেক্ট করুন।

ব্যক্তিগত তথ্য পূরণ

এই ধাপে আপনার পাসপোর্ট অনুসারে সকল তথ্য পূরণ করুন। আপনার পাসপোর্ট সাইজের একটি ছবি আপলোড করুন। ছবির সাইজ যেন 150 kb এর কম হয়।

জরুরী যোগাযোগের ঠিকানা

এ ধাপে আপনার পাসপোর্ট অনুসারে জরুরী যোগাযোগের ঠিকানা (Emargency Contact Address) এবং স্থায়ী ঠিকানা (Permanent Contact Address) লিখুন।

 

বর্তমান ঠিকানা

আপনার বর্তমান ঠিকানা অনুসারেই Police SB Office ও Police Thana আপনার আবেদন তদন্ত করবে। বর্তমান ঠিকানা সঠিকভাবে লিখুন।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আপলোড করুন

এ ধাপে আপনাকে Passport সহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট যেমন জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্ম নিবন্ধন বা ওয়ার্ড কাউন্সিলরের প্রত্যয়ন আপলোড করতে হবে। তবে প্রধানত, পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন আপলোড করলেই চলে।

তথ্য যাচাই করে আবেদন সাবমিট করুন

এবার অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন ফরমে আপনার দেয়া সকল তথ্য বানান সহ পুনরায় চেক করে দেখুন। কারণ আবেদন ভুল হলে সংশোধন করার সুযোগ নেই। সব তথ্য ঠিক থাকলে Final Submit অপশনে Tick দিয়ে Confirm বাটনে ক্লিক করুন। আপনার আবেদন সম্পন্ন হয়েছে।

চালান পরিশোধ করার নিয়ম

আবেদন সাবমিট করার পর, নিচের মত একটি পেইজে কনফার্মেশন মেসেজ পাবেন। এই পেইজ থেকে অনলাইনেই ই চালান পরিশোধ করতে পারবেন। কিন্তু এই চালানটি ভেরিফাই করতে ১ কর্মদিবস সময় লাগবে। চালান পরিশোধ করার ৩ টি মাধ্যম আছে,
1. ‍সোনালী বিল পেমেন্ট সিস্টেম (ইনস্ট্যান্ট ভেরিফাই) ধাপ- 10 এ দেখুন
2. ই চালান (১ কর্মদিবস পর ভেরিফাই) ধাপ- 11 এ দেখুন
3. অফলাইন চালান (১ কর্মদিবস পর ভেরিফাই)
সরাসরি সোনালী বিল পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ফি দিতে ১০ নম্বর ধাপ দেখুন।
তাছাড়া, অফলাইন চালান পরিশোধের জন্য চালান ফরম প্রিন্ট করতে পারবেন এবং চালান আপলোড করতে পারবেন। সেক্ষেত্রেও ১ দিন সময় লাগবে ভেরিফাই হতে।

সোনালী বিল পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে চালান পরিশোধ (ইনস্ট্যান্ট ভেরিফাই)

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চালান পরিশোধের জন্য সরাসরি এই লিংকে প্রবেশ করুন- পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পেমেন্ট (sbl.com.bd)। তাছাড়া Google এ Sonali Bill Payment System লিখে সার্চ করেও প্রবেশ করতে পারেন। এরপর Government > Police Clearance মেন্যুতে ক্লিক করুন।
পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদনে যেভাবে তথ্য দিয়েছেন ঠিক একইভাবে আপনার তথ্যগুলো ইংরেজিতে পুরণ করুন।
এবার দাখিল করুন > পেমেন্ট করুন বাটনে ক্লিক করুন তারপর ধাপ 12 অনুসরণ করুন।

ই চালানের মাধ্যমে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ফি পরিশোধ

অনলাইনে ই চালান পরিশোধ করতে পারবেন ২৪ ঘন্টা যে কোন সময়। এজন্য 9 নং ধাপে দেখানো, অনলাইনে পরিশোধ চিহ্নিত লিংকে ক্লিক করে ই চালান প্রস্তুত করুন। এরপর নিচ থেকে পরিশোধ বাটনে ক্লিক করে পেমেন্ট গেটওয়েতে যান।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চালান পরিশোধ

এ ধাপে সোনালী ব্যাংকের অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে ওপেন হবে। সোনালী ব্যাংক একাউন্ট, ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড ও মোবাইল ব্যাংকিং সেবা- বিকাশ, রকেট, নগদ ও ট্যাপ থেকে চালান পরিশোধ করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, আপনি 12.00 pm এর আগে চালান জমা দিলে সেটি একই দিন দুপুর 2.00 pm এর পর সার্ভারে আপডেট হবে। তবে, 12.00 pm এর পর চালান জমা দিলে তা পরের দিন দুপুর 2.00 pm এর পর সার্ভারে আপডেট হবে।
তাই, আপনার চালান দুপুর আপনি 12.00 pm পর জমা দিলে, সেটি পরের দিন 2.00 pm এর পর পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ওয়েবসাইটে আপলোড করবেন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স অনলাইন আবেদন ফরমে প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদনে যেসব তথ্য অনলাইনে পূরণ করতে হয় এখানে প্রত্যেকটি অপশন আমি নিচে বিস্তারিত ব্যাখ্যা করছি।

Purpose (উদ্দেশ্য)- প্রথমেই আছে Purpose, অর্থাৎ আপনি কোন প্রয়োজনে ক্লিয়ারেন্স নিচ্ছেন। বিদেশ যাওয়ার জন্য Go Abroad অপশনটি সিলেক্ট করুন। অন্য কোন উদ্দেশ্য হলে আপনার অনলাইনে আবেদন করার প্রয়োজন নেই।

Country of Travel- আপনি যে দেশে যেতে চান তা সিলেক্ট করুন।

Passport No- এখানে আপনার পাসপোর্ট নম্বরটি লিখুন। এরপর Issuing Country হিসেবে Bangladesh সিলেক্ট করুন।

Issue Date/ Issue Place/ Expiry Date- আপনার পাসপোর্ট প্রদানের তারিখ, প্রদানের স্থান এবং মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ লিখুন। প্রদানের স্থান আপনার পাসপোর্টে লিখা থাকবেনা। এটি আপনি যে জেলা পাসপোর্ট অফিস থেকে পাসপোর্ট নিয়েছেন, সে জেলার নাম লিখুন। আর বিদেশে অবস্থানরত হাই কমিশন থেকে নিলে, তার নাম লিখবেন।

Mobile No/ Email/ NID – এরপর আপনার মোবাইল নম্বর ও এনআইডি নম্বর দিন, ইমেইল এ্যাড্রেস অপশনাল চাইলে দিতে পারেন।

Full Name- বড় হাতের অক্ষরে আপনার পুর্ণ নাম লিখবেন। অবশ্যই আপনার নাম যেন পাসপোর্ট অনুসারে হয়। কোন পরিবর্তন/ ভুল হলে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স পাবেন না।

Father’s/ Husband Name- এখানে পিতা বা স্বামীর নাম দিবেন। পিতা হলে নিচের Relation অপশন থেকে Father সিলেক্ট করুন। স্বামী হলে Spouse সিলেক্ট করবেন।

Mother’s Name- মাতার নাম যদিও অপশনাল, দিয়ে দিলে ভাল। সব তথ্য অবশ্যই পাসপোর্ট অনুসারে লিখবেন।

Date of Birth- এখানে জন্ম তারিখ সিলেক্ট করুন।

Saluation- এটি হচ্ছে সম্বোধন, যার জন্য পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন করা হচ্ছে, তিনি পুরুষ হলে Mr, মহিলা হলে Ms দিতে পারেন। কোনটিই না দিতে চাইলে None সিলেক্ট করুন।

Photo- সবশেষে আপনার পাসপোর্ট সাইজের একটি ছবি স্ক্যান করে এখানে আপলোড করতে হবে। অবশ্যই আপনার ছবির সাইজ/ এমবি 150 KB এর বেশি হতে পারবে না। আপনার ছবির সাইজ কমানোর জন্য- tinyjpg.com ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করতে পারেন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কত দিনে পাওয়া যায়

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কত দিনে পাওয়া যায় তা নির্ভর করে তদন্তের সময়ের উপর। আপনার তথ্যে কোন গরমিল না থাকলে, কোন মামলা না থাকলে, সাধারণত ৭ থেকে ১০ কর্মদিবসের মধ্যেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পেয়ে যাবেন।

আরো দেখুন: সাপ্তাহিক চাকরির ডাক


আরোও পড়তে পারেন:

About eservicesbd

Check Also

জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে করণীয় কি

জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে করণীয়

জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে করণীয় কি এই সম্পর্কে জানতে অনেকেই গুগল সার্চ করে থাকেন। বর্তমান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *